brandbazaar globaire air conditioner
ব্রেকিং নিউজঃ

রাষ্ট্রপতি ক্ষমা করলেই খালেদার দণ্ড মওকুফ

রাষ্ট্রপতি ক্ষমা করলেই খালেদার দণ্ড মওকুফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি যদি মনে করে বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসা এখানে যথাযথ ভাবে হচ্ছে না, তাকে বিদেশে নেওয়া দরকার, তাহলে উচিত ছিল রাজনীতি না করে আইন অনুযায়ী সর্বশেষ পথ মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাওয়া। রাষ্ট্রপতি ক্ষমা করলেই তার দণ্ড মওকুফ হয়ে যাবে। তখন তিনি স্বাধীনভাবে যেকোনো জায়গায় যেতে পারবেন।

শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট ফোরাম (বোয়াফ) আয়োজিত ‘বিশ্ব সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ ও হলি আর্টিজান-মুম্বাই হামলা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, বিএনপি খালেদা জিয়ার মুক্তি চায়, তিনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ছিলেন এটা সত্য। পাশাপাশি এটাও সত্য তিনি আদালত কর্তৃক একজন দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি। অতএব একজন দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি কারাগারে থাকা অবস্থায় যতো সুযোগ-সুবিধা কারাবিধি অনুযায়ী সেটা তিনি পাবেন। বেগম খালেদা জিয়া এ ক্ষেত্রে অত্যন্ত সৌভাগ্যবান, উনি আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবতায় কারাবিধির বাইরে সুযোগ-সুবিধা ভোগ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী তার সর্বোচ্চ ক্ষমতা ব্যবহার করেই বেগম জিয়াকে বাইরে রেখেছেন।

তিনি বলেন, চিকিৎসার জন্য খালেদাকে বিদেশে পাঠানোর বিষয়ে বিএনপি, রাষ্ট্রপতি ও আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি ওবায়দুল কাদেরের রেফারেল দিয়ে যে অযৌক্তিক দাবি করছে তা ঠিক না। কেননা তারা চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে পারলেও বেগম জিয়া যেতে পারবেন না। তিনি যেতে পারবেন না এ কারণেই, কারণ রাষ্ট্রপতি কিংবা বাকিরা দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি নন। দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি ছাড়া যেকোনো স্বাধীন নাগরিক তার ইচ্ছেমত যেকোনো জায়গায় যেতে পারেন।

বোয়াফ সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময়ের সভাপতিত্বে আলোচনায় আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, সাংবাদিক নেতা মনজুরুল আহসান বুলবুল।

 

Related posts