brandbazaar globaire air conditioner

লুঙ্গি দিয়ে সিসি ক্যামেরা ঢেকে শিক্ষার্থীদের পেটালেন শিক্ষক

লুঙ্গি দিয়ে সিসি ক্যামেরা ঢেকে শিক্ষার্থীদের পেটালেন শিক্ষক

চার শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটানোর অভিযোগ উঠেছে মাদারীপুরের শাহ্ মাদার দরগা শরীফ মাদ্রাসার হুজুর বেলাল হোসাইনের বিরুদ্ধে। এ সময় মারপিটের দৃশ্য যেন রেকর্ড না হয়, সে জন্য নিজের লুঙ্গি দিয়ে সিসি ক্যামেরা ঢেকে রাখে ওই শিক্ষক।

গত শুক্রবার আসর নামাজের পর এ ঘটনা ঘটে। এ সময় দুই শিক্ষার্থী পালিয়ে বাড়ি চলে যায়।

মারধরের শিকার শিক্ষার্থীরা হলেন, ডাসার উপজেলার বালিগ্রাম ইউনিয়নের পশ্চিম বোথলা গ্রামের শাহাদাৎ বেপারীর ছেলে আসিফ বেপারী (১০) ও আয়নাল বেপারীর ছেলে সাকিব মোল্লা (১২)। একই উপজেলার রাজার চরের রাজু ও কালকিনি উপজেলার খাসের হাট গ্রামের সাইফুল। তারা সবাই মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

হুজুরের মারধরের শিকার আসিফ বেপারীর বলেন, অহেতুক হুজুর তাকে মেরেছেন। কুঁচকিতে ঘা হওয়ায় আসিফ অসুস্থ ছিল। আসরের নামাজ পড়তে পারেনি। তাই হুজুর সিসি ক্যামেরা লুঙ্গি দিয়ে ঢেকে চারজনকে বেধড়ক পেটান।

আসিফ আরো বলে, ‘আমার হাত ও পিঠে দাগ হয়ে গেছে। হুজুর আমাদের হুমকি দেন যে আমাদের মতো দু-একজন মেরে দরকার হয় তিনি জেলে যাবেন।’

এ ঘটনায় আসিফ বেপারির বাবা শাহাদাৎ হোসেন বলেন, ‘এভাবে যদি মাদ্রাসায় ছাত্রদের মারধরের শিকার হতে হয় তাহলে মাদ্রাসায় আর আমাদের ছেলে-মেয়েদের ভর্তি করাবো না।’

এ বিষয়ে মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আল আমিন বলেন, এটা একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। অভিযুক্ত শিক্ষক বেলাল হোসাইন বর্তমানে পলাতক আছেন।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. কামরুল হোসেন মিঞা বলেন, বিষয়টি এখনও জানি না। যদি কেউ লিখিত অভিযোগ করে, তাহলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

Related posts

body banner camera